স্বামীর লাশের ওপর’ বসেই ২,মাস ১৪, দিন রান্না করেন স্ত্রী!

স্বামীর লাশের ওপর’ বসেই ২,মাস ১৪, দিন রান্না করেন স্ত্রী!
আড়াই মাস আগে খাবারের সঙ্গে ঘু’মের ওষুধ মিশিয়ে স্বামীকে হ’ত্যা, তারপর রান্নাঘরে লা’শ পুঁতে ফেলা। তার উপর

নিয়মিত দুই- মাস ১৪- দিন রান্না চালিয়ে গেছেন স্ত্রী। লো’মহ’র্ষক এই ঘটনা ঘটেছে মুন্সি’গঞ্জ সদর উ’পজেলার পূর্ব শীলমন্দি এলাকায়”’।

এ ঘটনায় ঘা’তক স্ত্রী, আকলিমা আক্তারকে গ্রে’ফতারের পর নি,হত স্বামী আরাফাত মোল্লার (৫০) মাটিচা’পা

দে’হাবশেষ উ’দ্ধার করেছে পুলিশ। আজ শুক্রবার সন্ধ্যা ৬-টার দিকে নি’হতের লা,শ উদ্ধার করে মুন্সি’গঞ্জ স’দর থানা পুলিশ। এর আগে এ দিন” সকাল ১১-টায় আকলিমাকে আট’ক করা হয়। নি’হত আরাফাত পূ’র্ব শীল’মন্দি এলাকার মৃ’ত দুঃখাই মোল্লার ছেলে” এবং চার স’ন্তানের জনক,,,

পুলিশ সূ’ত্রে জানা যায়, চ’লতি বছরের ২- মে থেকে আরাফাত নি’খোঁজ হন বলে ১৫- মে স্ত্রী” সদর থা’নায় একটি’ জিডি’ করেন। পরে ৩০- মে একটি মাম’লা করেন। মাম’লার বি’ষয়ে বিভিন্নভাবে তদ’ন্ত চলিয়ে যায় পুলিশ। তদ’ন্তের একপর্যায়ে গতকাল শুক্রবার (১৬ই- জুলাই) স,কালে আকলিমা’র সঙ্গে এক প্র,তিবেশীর কথোপকথনের ভিডিও পু,লিশের হাতে আসে;।

পুলিশের হাতে, আসা ভিডিও,তে দেখা যায়, আকলিমাই আরাফাতকে হ’ত্যা করে রান্নাঘরে লা’শ পুতে রাখার বি’ষয়টি বলছেন প্রতিবেশীর কাছে। এর প,রিপ্রেক্ষিতে শুক্রবার সকালে আকলিমাকে আট’ক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে প’রকী’য়ার জেরে তিনি ঘু,মের ওষুধ খা,ইয়ে স্বামীকে হ’ত্যা করেছেন বলে পুলিশের কাছে স্বী,কার করেন। পরে আকলিমাকে ঘটনাস্থলে নে,ওয়া হলে স্বামীর লা,শ পুতে রাখার স্থান দে,খিয়ে দেন,,,।

এ ব্যাপারে সদর থা’নার ভারপ্রা,প্ত ক’র্মকর্তা ওসি) আবুবকর সিদ্দিক জানান, বিশ্বস্ত সূত্রে আমর’া জানতে পারি আকলিমাই স্বামী আরাফাতকে হ’ত্যা করেছেন। এ ঘটনায় তাকে আট’কের পর তিনি স্বীকার করে বলেন যে, তার স্বামীর প,রকীয়া. সম্পর্কের জের ধরে তিনি এ হ’ত্যাকাণ্ড” ঘটান। হ,ত্যাকাণ্ডের ঘটনায় স্ত্রী,, আকলিমা ও জড়িতে সন্দে,হে রিয়াজ নামের অ,পর আরেকজন,কে আট,ক করা হয়েছে,,,,

About jacob done

Check Also

এহসান” গুরুপ নিয়ে খ্যাত, কুয়াকাটা হুজুরের মন্তব্য!

এহসান” গুরুপ নিয়ে খ্যাত, কুয়াকাটা হুজুরের মন্তব্য! ”হেলিকপ্টার হুজুর” খ্যাত কুয়াকাটার মাওলানা মো. হাফিজুর রহমান’ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *