Breaking News

স্ত্রীর-চিকিৎসার টাকা জোগাড় করতে শিশু-কে খুন।

স্ত্রীর-চিকিৎসার টাকা জোগাড় করতে শিশু-কে খুন।

রাজধানীর খিল-গাঁওয়ে পাঁচ বছরের শিশু জিসানুল ইসলাম আকাইদ হত্যায় রিকশা,চালক আসামি (মো:সেলিম) দায় স্বীকার করে আদালতে

জবানবন্দি দিয়েছেন। মঙ্গলবার ঢাকা মহানগর হাকিম দেবব্রত বিশ্বাসের আদালত তার জবানবন্দি রেকর্ড করেন।

এদিন আসামি সেলিম-কে আদালতে হাজির করা হয়। এসময় আসামি স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তি,মূলক জবানবন্দি দিতে সম্মত হন। এরপর মামলার

তদন্তকারী কর্মকর্তা ফৌজদারি কার্যবিধি ১৬৪ ধারায় তাদের জবানবন্দি রেকর্ড করার আবেদন করেন। আবেদনের পরি,প্রেক্ষিতে আদালত তার জবানবন্দি রেকর্ড করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

এর আগে গত সোমবার খিলগাঁও থানার গোড়ান এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে মো: সেলিমকে গ্রেফতার করে খিলগাঁও থানা পুলিশ। এসময়

অপহরণের কাজে ব্যবহৃত রিকশা, অপহরণের সময় অপহরণ,কারীর পরিহিত টি*শার্ট ও লুঙ্গি, হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ক্ষুর উদ্ধার করা হয়।

মামলার সূত্রে জানা যায়, গত (৬ আগস্ট ) বিকেল ৩,টায় ভুক্ত,ভোগী জিসানুল ইসলাম আকাইদ ও তার সমবয়সী পাঁচ থেকে ছয় জন শিশু একসঙ্গে খেলাধুলা করতে বাসা হতে বের হয়। খেলা শেষে অন্যান্য শিশুরা বাসায় ফিরে গেলেও আকাইদ বাসায় ফেরত আসেনি। এরপর

ভুক্তভোগীর পরিবার অনেক খোঁজাখুজি করেন। ঘটনার দিন অজ্ঞাতনামা রিকশাচালক তার রিকশাতে করে ভুক্ত,ভোগীকে নিয়ে যাওয়ার বিষয়ে স্থানীয় এবং আশেপাশের লোকজনের মাধ্যমে তার পরিবার জানতে পারেন।

এ ঘটনায় গত ৭ আগস্ট ভুক্তভোগীর বাবা অপহরণের ঘটনা বর্ণনা করে অভিযোগ প্রদান করলে খিলগাঁও থানার মামলা করা হয়। এরপর এ মামলা, তদন্ত শুরু করে খিল,গাঁও থানা পুলিশ। মামলা,টি তদন্তকালে, গত সোমবার সাড়ে ১১, টায় খিলগাঁও থানার মধ্য নন্দীপাড়া নূর

মসজিদ গলির একটি ভবনের দ্বিতীয় তলায় পঁচাগলা অবস্থায় একটি শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ভুক্তভোগীর বাবা-সা শিশুর মরদেহে পরনে থাকা প্যান্টের রং দেখে তাকে শনাক্ত করেন।

মামলার সূত্রে আরো জানা যায়, সেলিম পেশায় একজন রিকশাচালক। ভুক্তভোগীর লাশ যে বাড়িতে পাওয়া গেছে সেই বাড়ির মালিক সেলিমের

দুসম্পর্কের আত্মীয় হয়,। বাড়ির মালিকের স্ত্রী, একটি ব্যাংকে চাকরি করেন। আত্মীয়তার সম্পর্কের কারণে সেলিম উক্ত ব্যাংক কর্মকর্তাকে তার রিকশা,যোগে বাসা ও ব্যাংকে আনা-নেয়া করতেন।

কিডনী রোগে আক্রান্ত তার স্ত্রী নুপুর আক্তারের চিকিৎসার জন্য অনেক টাকার প্রয়োজন। তার স্ত্রীর চিকিৎসার জন্য ব্যাংক কর্মকর্তার কাছে টাকা চায় সেলিম। ব্যাংক কর্মকর্তা তাকে টাকা প্রদান না করায় অবৈধ জিনিস ব্যাংক কর্মকর্তার বাড়িতে রেখে ফাঁদে ফেলার মাধ্যমে মোটা অংকের টাকা আদায়ের পরিকল্পনা করে অভিযুক্ত সেলিম,,।

পরিক,ল্পনা বাস্ত,বায়নের জন্য গত (৪ আগস্ট) দোকান থেকে সে একটি ক্ষুর কিনে তার কাছে রাখে। ঘটনার দিন ভুক্তভোগীর জিসানুলকে

তার রিকশায় করে ব্যাংক কর্মকর্তার বাড়ির দ্বিতীয় তলায় নিয়ে যায়। পর-বর্তীতে ভুক্তভোগীর হাত রশি দিয়ে বেধেঁ ধারালো ক্ষুর দিয়ে গলা কেটে মৃত্যু নিশ্চিত করে দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে সেলিম”।

এদিকে ঢাকা মেট্রো-পলিটন পুলিশের (ডিএমপি) মতিঝিল বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) (মো. আ. আহাদ) জানান, মামলার পর একাধিক টিম গঠন করে তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে অপহৃত শিশুকে উদ্ধারের জন্য ঘটনাস্থলের আশপাশের এলাকা থেকে ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়।

ভিডিও-গুলো পর্যালোচনা করে দেখা যায়, অজ্ঞাত রিকশাচা*লক অপহৃত শিশু,টিকে রিকশাযোগে নিয়ে যায়। তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তা নেয়ার
পাশাপাশি খিলগাঁও থানা ও আশ,পাশের থানা এলাকার রিকশার গ্যারেজ,গুলোতে অভিযান পরিচালনা করা হয়। পরে তদন্তের মাধ্যমে রিকশাচালক সেলিমকে শনা,ক্ত শেষে গ্রে,ফ,তা,র করা হয়।”

About jacob done

Check Also

এহসান” গুরুপ নিয়ে খ্যাত, কুয়াকাটা হুজুরের মন্তব্য!

এহসান” গুরুপ নিয়ে খ্যাত, কুয়াকাটা হুজুরের মন্তব্য! ”হেলিকপ্টার হুজুর” খ্যাত কুয়াকাটার মাওলানা মো. হাফিজুর রহমান’ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *