পারিবারিক সহিংসতা; নিজের সন্তান যদি আপনাকে মারে;তখন কী করবেন?

জের মারমুখি সন্তানের হাতে মার খেতে হবে- বেশিরভাগ বাবা-মাকে কখনোই এরকম ভয়ে থাকতে হয় না।

কিন্তু যখন এরকমটা ঘটে, তখন বাবা-মাকে আসলেই খুব কঠিন এক দ্বন্দ্বের মধ্যে পড়তে হয়। সন্তান এমন আচরণ করলে তাকে ছেড়ে চলে যাবেন, সেটা যেমন পারেন না;

তেমনি যদি এই সমস্যার জন্য সাহায্য চান, সেটি সন্তানের ওপর কী প্রভাব ফেলবে সেটাও নিয়েও বাবা-মা শংকায় থাকেন। গবেষণায় দেখা যায়, এধরণের সমস্যাগুলো সচরাচর লুকিয়ে রাখা হয়, এবং এরকম সমস্যা আমরা যা ধারণা করি তার চেয়ে অনেক বেশি।

গত গ্রীষ্মে দশ বছর বয়সী এইডান সিদ্ধান্ত নিল তাদের পরিবারের পোষা কুকুরটাকে মেরে ফেলবে। একটা সসেজের লোভ দেখিয়ে কুকুরটাকে সে সোফার পেছনে নিয়ে গেল, তারপর দুই হাতে কুকুরটির নাকমুখ আর গলা চেপে ধরলো।

“কিন্তু অদ্ভুত ব্যাপার হচ্ছে, ও কিন্তু আর সবার ;চেয়ে কুকুরটাকে এবং আমাকেই সবচেয়ে বেশি ভালোবাসে”, বলছিলেন এইডানের মা হ্যাজেল।

“কিন্তু আমাদের দুজনকেই ও বেশি আঘাত করবে, এবং অনেক সময় ও কুকুরটাকে আঘাত করবে শুধু আমাকে কষ্ট দেয়ার জন্য।”

এইডান রেগে গেলে লাথি মারে, ঘুষি মারে। আগে কামড়ে দিত। সে তার মা হ্যাজেলকে বলে, তাকে সে ঘৃণা করে এবং সে চায় তার মা যেন মরে যায়।

সে একটা বন্দুক নিয়ে এসে তার মাকে গুলি করে মেরে ফেলবে। এইডান তার মাকে সিঁড়ি থেকে ঠেলে নীচে ফেলে দেয়ার চেষ্টা করেছে। এখন এইডান জানে, তার মায়ের দুর্বলতা আসলে কোথায়।

হ্যাজেলের চোখে সমস্যা আছে। কাজেই এইডান তার দিকে জিনিসপত্র ছুঁড়ে মারে, যেগুলো হ্যাজেল দেখতে পায় না। সম্প্রতি এইডান তার মায়ের দিকে ছুঁড়ে মেরেছিল একটি কেটলি। সৌভাগ্যবশত তখন এটিতে ফুটন্ত পানি ছিল না। তবে এইডান জানতো না যে কেটলিটি ঠান্ডা, সে কেটলি তুলে ছুঁড়ে মেরেছিল।

এইডান রেগে গেলে লাথি মারে, ঘুষি মারে। আগে কামড়ে দিত। সে তার মা হ্যাজেলকে বলে, তাকে সে ঘৃণা করে এবং সে চায় তার মা যেন মরে যায়। সে

একটা বন্দুক নিয়ে এসে তার মাকে গুলি করে মেরে ফেলবে। এইডান তার মাকে সিঁড়ি থেকে ঠেলে নীচে ফেলে দেয়ার চেষ্টা করেছে। এখন এইডান জানে, তার মায়ের দুর্বলতা আসলে কোথায়।

হ্যাজেলের চোখে সমস্যা আছে। কাজেই ;এইডান তার দিকে জিনিসপত্র ছুঁড়ে মারে, যেগুলো হ্যাজেল দেখতে পায় না। সম্প্রতি এইডান তার মায়ের দিকে ছুঁড়ে

মেরেছিল একটি কেটলি। সৌভাগ্যবশত তখন এটিতে ফুটন্ত পানি ছিল না। তবে এইডান জানতো না যে কেটলিটি ঠান্ডা, সে কেটলি তুলে ছুঁড়ে মেরেছিল।

1 আপনার সন্তান কেবল দুরন্ত নাকি মানসিক সমস্যাগ্রস্থ?
2 অতিরিক্ত মোটা শিশুরা বেশি রাগী হয় – গবেষণা
3 বাচ্চাকে জিনিয়াস হিসাবে গড়ে তুলতে চান? জানুন কীভাবে
4 মানসিক রোগীকে কীভাবে সাহায্য করতে পারেন

একবার এইডান রান্নাঘরে ড্রয়ার থেকে ছুরি নিয়ে পরিবারের আরেক সদস্যের দিকে তেড়ে গিয়েছিল। তারপর থেকে বাড়ির সব ছুরি এইডানের হাতের নাগালের বাইরে তালা মেরে রাখা হয়। কিন্তু এইডান যা পায় সেটাই ব্যবহার করে, সেটা কাঁচি বা নখ কাটার ;ক্লিপার্স, যেটাই হোক।

“ওর যে কোন আচরণই সহিংসতার দিকে গড়ায়। ও সহিংস; পথটাই বেছে নেবে, যে কোন পরিস্থিতিতে ও কেবল সহিংসতাই দেখে। আমরা এমনকি বাচ্চাদের অনুষ্ঠান

পর্যন্ত দেখতে পারি না, সেখানে যদি সামান্য সহিংসতার কোন দৃশ্য থাকে, ও সেই কাজটাই বাস্তবে করে দেখাবে, বার বার করবে” বলছেন হ্যাজেল।

হ্যাজেল এবং তার স্বামী যখন এইডানকে দত্তক নেন, তখন ওর বয়স চার। শুরুতেই এটা স্পষ্ট হয়ে গিয়েছিল যে এইডানের যে ধরণের ;সেবা-যত্নের দরকার বলে তারা ভেবেছিলেন, ওর অবস্থা আসলে তার চেয়ে অনেক বেশি জটিল।

“প্রথম দিন থেকেই আমরা জানতাম ওর; গুরুতর কিছু সমস্যা আছে”, বলছেন হ্যাজেল। “কিন্তু আমরা ভেবেছিলাম ও একটা অদ্ভুত পরিবেশে ছিল, ওকে যে ধরণের পরিবেশে এর আগে দত্তক দেয়া হয়েছিল, সেখানকার পরিবেশ হয়তো ভালো ছিল না…দেখা যাক পরিস্থিতি কোন দিকে যায়।”

কিন্তু ব্যাপারটা আসলে ভালো দিকে যায়নি। একেবারে শুরু থেকেই এইডান ঘুষি মারতো, চুল ধরে টানতো, থুতু ছিটাতো। হ্যাজেল এবং তার স্বামী আশা করেছিলেন ওর এই সহিংস আচরণ ধীরে ধীরে বন্ধ হবে, কিন্তু অবস্থা আসলে খারাপ হচ্ছিল। একটি স্কুলের যে বিশেষ শাখায় এইডানকে ভর্তি করা হয়েছিল, সেখানে পাঁচ বছর বয়সের মধ্যেই এইডানের মার খেয়ে দুজন সহকারীকে হাসপাতালে যেতে হয়েছে। এদের একজনের মুখে জোরে লাথি মেরেছিল এইডান। ও রেগে কিছু একটা ছুঁড়ে ফেলেছিল মেঝেতে। উবু হয়ে মাটি থেকে জিনিসটি যখন তুলতে যাচ্ছিলেন স্কুলের এই সহকারী, তখন এইডান একেবারে সোজা তার মুখে জোরে লাথি মারে।

এইডান যখন রেগে-মেগে এরকম সহিংস আচরণ করতে থাকে, তখন কীভাবে ওকে সামলাতে হবে, তার জন্য স্কুলের স্টাফদের বিশেষ প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। হ্যাজেলের মনে আছে প্রথম যেদিন এইডানকে প্রায় বাড়তি ৫০ মিনিট ধরে আটকে রাখা হয়েছিল।

About jacob done

Check Also

এহসান” গুরুপ নিয়ে খ্যাত, কুয়াকাটা হুজুরের মন্তব্য!

এহসান” গুরুপ নিয়ে খ্যাত, কুয়াকাটা হুজুরের মন্তব্য! ”হেলিকপ্টার হুজুর” খ্যাত কুয়াকাটার মাওলানা মো. হাফিজুর রহমান’ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *