Breaking News

পাটের “আঁশ দিয়ে রেসিং কার” বানিয়ে সাড়া ফে,লে,ছে কুয়েট শিক্ষার্থীরা

পাটের “আঁশ দিয়ে রেসিং কার” বানিয়ে সাড়া ফে,লে,ছে কুয়েট শিক্ষার্থীরা
তারা মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং; ডিপার্টমেন্টের শিক্ষার্থী। পড়ছেন খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুয়েট)। তাদের আছে ‘কিলোফ্লাইট’

নামে একটি দল। এ দলের সদস্যরা মিলে তিন বছরের চেষ্টায় ,,পাটের আঁশ দিয়ে বানিয়েছেন ‘রেসিং কার’। এই কারের নাম দিয়েছেন ‘কিলোফ্লাইট আলফা’।

‘কিলোফ্লাইট আলফা’ ফর্মুলা স্টুডেন্ট ইউকে প্র;তিযোগিতার অনলাইন ইভেন্টে অংশ নিয়েছে শিক্ষার্থীরা। এই প্রতিযোগিতার লাইভ ও অনলাইন দুটি ইভেন্টে বাংলাদেশসহ বিশ্বের ৬৪টি দেশ অংশ নেয়। যা আন্তর্জাতিক,, অঙ্গনে সাড়া ফেলেছে।

কুয়েটের মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টের; দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ও কিলোফ্লাইটের ড্রাইভ ট্রেইন এক্সপার্ট অম্লান বিশ্বাস বলেন, গাড়িটি মূলত ফর্মুলা স্টুডেন্ট ইউকে টার্গেট করে বানানো।

এ গাড়িটির বিশেষত্ব হলো, সম্পূর্ণ বডি জুট ফাইবার দিয়ে তৈরি,, করা। যেটা দেশের ঐতিহ্যকে ধরে রাখবে। এতে উন্নত মানের ইঞ্জিন, গিয়ার, ব্রেক, মিটার দেওয়া রয়েছে। চালকের জন্য রয়েছে; সুরক্ষাব্যবস্থা। গাড়িটি ঘণ্টায় ১৬২ কিলোমিটার বেগে চলতে পারবে।

তিনি বলেন, গাড়িটি নিয়ে ফর্মুলা স্টুডেন্ট ইউকে প্রতিযোগিতায়,, অংশ নিয়েছিলাম। করোনার কারণে তারা প্রতিযোগিতাকে দুই ভাগে ভাগ করেছে। একটা হচ্ছে লাইভ; ইভেন্ট এবং অন্যটি হচ্ছে অনলাইন ইভেন্ট। করোনার ;রেডজোনের কারণে ইউরোপের দেশগুলো লাইভ ইভেন্ট এবং বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তানসহ অন্য দেশগুলো অনলাইন; ইভেন্টে অংশ নিয়েছে। বিশ্বের ৬৪টি দেশের মধ্যে আমরা ৩৩তম হয়েছি। এই প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশ থেকে এক;মাত্র আমরাই অংশ নিয়েছি। এটা আমাদের জন্য একটা বড় অর্জন।

কুয়েটের মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ও,, কিলোফ্লাইটের টিম ম্যানেজার সাফায়েত সাইমুম বলেন, টিম কিলোফ্লাইট ২০১৮ সালে সৃষ্টি হয়েছে।

শুরুর পর চলতি বছরের জুলাই মাসে গাড়িটি তৈরি সম্পন্ন হয়। এটি তৈরির মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে, প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়া। এতে ;প্রতিযোগিতার; বিচারকরা বলতে পারবেন আমরা গাড়িটা কত ভালো মানের বানিয়েছি। মূলত এ জন্যই প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়া।

কিলোফ্লাইট টিমের ক্যাপ্টেন এরফান ইসলাম বলেন, অটোমোবাইলে আমাদের দেশকে; এগিয়ে নিতে এবং দক্ষ ইঞ্জিনিয়ার তৈরির জন্য এই উদ্যোগ। কুয়েটের বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী,, ও নিজেদের অর্থায়নে এই রেসিং কারটি প্রস্তুত করা হয়েছে। সরকারি এবং বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থায়ন গেলে ভালো হয়। এই গাড়িটি পরিবেশবান্ধব

পাট দিয়ে বানানো। এটির বডি ও অ্যারো জুট ফাইবার কম্পোজিট দিয়ে প্রস্তুত করা হয়েছে। বিষয়টি আমাদের পাটশিল্পকে; এগিয়ে নিতে ভূমিকা রাখবে। এখন বিশ্বের সবক্ষেত্রে কার্বন ফাইবার ব্যবহার করা হয়। সেখানে যদি দেশীয় তৈরি জুট ফাইবার দিয়ে রিপ্লেস করতে পারি, তাহলে বাংলাদেশের জন্য একটি বড়,, ধরনের সুযোগ হবে।

কুয়েটের মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টের শিক্ষার্থী ও টিম কিলোফ্লাইটের নতুন সদস্য মহিদুল ইসলাম বলেন, কাজটি আমাদের জন্য ইনক্রেজিং। কারণ ফর্মুলা স্টুডেন্টে ;আমাদের দেশ থেকে আমরা প্রথম অংশগ্রহণ করি। পরবর্তী সময়ে; আমরা আরও ভালো করার চেষ্টা করব। যাতে দেশবাসী আমাদের নিয়ে গর্ববোধ করতে পারে।

কুয়েটের মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টের অধ্যাপক ইঞ্জিনিয়ার ড. মুহাম্মদ মাছুদ বলেন, আড়াই বছর আগে প্রথম কাজটি শুরু করে। প্রজেক্টের শুরু থেকেই তাদের একাডেমিক অ্যাডভাইজার হিসেবে ছিলাম; আমি। শিক্ষার্থীদের ২৮ জনের টিমকে প্রশিক্ষণ দেয়ার ব্যবস্থা করা হয়। এরপর তারা নিজেরাই ডিজাইন করে সম্পূর্ণ নিজস্ব উদ্যোগে এবং আমাদের শিক্ষকদের সহযোগিতায়,, সফলভাবে শেষ করতে পেরেছে। এ জন্য আমি গর্বিত;।

শিক্ষার্থীরা নিজস্ব টেকনোলজিতে গাড়ি; তৈরি করেছে, কুয়েটে এটিই প্রথম। এটা বিশ্ববিদ্যালয় ও ডি,পার্টমেন্টের গর্বের। একই সঙ্গে দেশের জন্য এটি একটি মাইলফলক। যদি আমরা অটো মোবাইল ইন্ডাস্ট্রির ডেভেলপমেন্ট চাই, তাহলে এই কাজের জন্য ছাত্রদের উৎসাহিত করতে পারি– ড. মুহাম্মদ মাছুদ;।

তিনি বলেন, এই প্রজেক্টে সাবেক শিক্ষার্থী; এবং নিজস্ব অর্থায়ন ও মেধা খাটিয়ে গাড়িটি তৈরি করেছে। ফা,ন্ড কালেকশনে যে পরিমাণ মেধা ও সময় ব্যয় করেছে, সেটা যদি বিশ্ববিদ্যালয় অথবা সরকারি অর্থায়নে হতো, তাহলে তাদের সময় ও মেধা গাড়ি তৈরির কাজে লাগাতে পারত। এতে কাজটি দ্রুত এবং ভালো হতো;।

কুয়েটের মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টের প্রধান অধ্যাপক ড. মো. সাহিদুল ইসলাম বলেন, পরিবেশবান্ধব উপাদান দিয়ে তারা গাড়িটি তৈরি করেছে। পরিবেশবান্ধব বলা হচ্ছে ;কারণ জুট কম্পোজিট করে/ এটা তৈরি করা হয়েছে। করোনার কারণে আমরা কুয়েটের ল্যাব ব্যবহার করতে দিতে পারিনি। ৫ থেকে ৭ জনের গ্রুপ করে তারা প্রজেক্ট সম্পন্ন করেছে। উন্নত বিশ্বে এই ধরনের .প্রজেক্ট নিয়ে অনেক রিসার্চ চলছে;।

About jacob done

Check Also

এহসান” গুরুপ নিয়ে খ্যাত, কুয়াকাটা হুজুরের মন্তব্য!

এহসান” গুরুপ নিয়ে খ্যাত, কুয়াকাটা হুজুরের মন্তব্য! ”হেলিকপ্টার হুজুর” খ্যাত কুয়াকাটার মাওলানা মো. হাফিজুর রহমান’ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *