Breaking News

কান্নায় ছট,ফট করছিল, (শিহাব),চুরির অভিযোগে হাত-পা বেঁধে লাঠি,পেটা —

1কান্নায় ছট,ফট করছিল, (শিহাব),চুরির অভিযোগে হাত-পা বেঁধে লাঠি,পেটা
2কান্নায় ছটফট করছিল শিহাব, চুরির অভিযোগে হাত-পা বেঁধে লাঠিপেটা
————————————————————
নওগাঁর মহা দেব পুরে স্মার্ট ফোন চুরির অভি,যোগে (শিহাব) হোসেন (১৪) নামে এক কিশো,রকে হাত-পা বেঁধে,,

নির্যাতনের অভিযোহগ পাওয়া গেছে। শুক্র,বার (৩০ জুলাই) সকালে উপজেলার বাগা,চারা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

(শিহাব)কে মারধরের ঘটনায় ওই এলাকায় নির্মাণাধীন একটি অটোগ্যাস ফিলিং স্টেশনের নৈশ প্রহরীকে আটক করেছে

পুলিশ। আটক ব্যক্তির নাম বকুল হোসেন (৫৫)। তিনি উপজেলার চৌমাশিয়া গ্রামের বাসিন্দা। নির্যাতনের (শিহাব) বাগাচারা গ্রামের খোরশেদ আলমের ছেলে।

নির্যাতনের শিকার কিশোরের পরি-বার, স্থানীয় বাসিন্দা ও মহা-দেবপুর থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সকাল ৭টার দিকে নওগাঁ-রাজশাহী আঞ্চ-লিক মহাসড়কের পাশে উপজেলার বাগা-চারা এলাকায় নির্মা-ণাধীন একটি অটো-গ্যাস ফিলিং স্টেশন এলাকায় যায় শিহাব নামের শিশুটি। এ সময় মোবাইল ফোন চুরির অভিযোগ তুলে ফিলিং স্টেশনের নৈশপ্রহরী বকুল হোসেন ও কয়েকজন নির্মাণ -শ্রমিক শিশুটিকে হাত-পা বেঁধে লাঠি দিয়ে -মারধর করে।
——————–
এরপর শিহাবকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় নৈশপ্রহরী বকুল তার কক্ষে আটকে রাখে। পরে ঘটনা জানাজানি হলে শিশুটির
——————–
পরিবারের লোকজন ও স্থানীয় বাসিন্দারা এসে শিশুটিকে সেখান থেকে উদ্ধার করে। লোকজন আসার আগেই নৈশপ্রহরী

বকুল হোসেন সেখান থেকে পালিয়ে যায়।
——————————-
নির্যাতিত (শিহাব) বাবা খোরশেদ আলম বলেন, ‘আমার ছেলে (শিহাব)কে হাত-পা বেঁধে মারধরের ঘটনার ভিডিও এলাকার বিভিন্ন মানুষের মোবাইলে ছড়িয়ে পড়েছে। ভিডিওতে দেখতে পাইছি, ছেলেক হাত-পা বেঁধে কিভাবে মারধর করা
——————–

হয়েছে। আমি এ নির্যাতনের বিচার চাই। মহাদেবপুর থানার ওসি (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ৷ গণমাধ্যমকর্মীদের বলেন, এ ঘটনায় ইতোমধ্যে মূল অভিযুক্ত ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে।

ঘটনার সাথে জড়িত অন্যদেরও আটকের চেষ্টা চলছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

About jacob done

Check Also

এহসান” গুরুপ নিয়ে খ্যাত, কুয়াকাটা হুজুরের মন্তব্য!

এহসান” গুরুপ নিয়ে খ্যাত, কুয়াকাটা হুজুরের মন্তব্য! ”হেলিকপ্টার হুজুর” খ্যাত কুয়াকাটার মাওলানা মো. হাফিজুর রহমান’ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *