Breaking News

“অবশেষে” পরীমনি প্রসঙ্গে মুখ খু,ললেন শাকিব খান।

“অবশেষে” পরীমনি প্রসঙ্গে মুখ খু,ললেন শাকিব খান।
কয়েকদিন ধরে অ,ভিনেত্রী পরীমনিসহ চলচ্চিত্র অঙ্গনের বি,চ্ছিন্ন কিছু ঘটনা এবং চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির বি,তর্কিত আচরণে ইন্ডাস্ট্রিতে

কাজের পরিবেশ নষ্ট, হচ্ছে বলে মনে করছেন সময়ের জ,নপ্রিয় সুপারস্টার নায়ক, (শাকিব খান)। তিনি নিজের সা,মাজিক মাধ্যম ফেসবুকে এ বি,ষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে লিখেছেন।

গত (৪-আগস্ট) বিকেলে পরীমনির বনানীর বাসায় অভিযান চালায় র‌্যাবের গোয়েন্দা দলের সদস্যরা। প্রায় ৪ ঘণ্টার অভিযান শেষে রাত ৮টার

দিকে তাকে আটক করে র‌্যাব স,দরদফতরে নিয়ে যাওয়া হয়। দুই দফায় শুনানি শেষে পরী-কে গতকাল ১৩-আগস্ট কারাগারে পাঠানোর নি,র্দেশ দিয়েছেন আদালত।

পরী, আটক হওয়ার পর থেকেই নিশ্চুপ দেখা গেছে ইন্ডাস্ট্রির শি,ল্পী ও কলাকুশলীদের। এ নিয়ে অনেক সমালোচনাও হয়েছে। অবশেষে প্রায় ১০ দিন পর, এ প্রসঙ্গে মুখ খুললেন শাকিব খান।

তিনি ফে,সবুকের এক স্ট্যাটাসে লেখেন, ‘খেয়াল করছিলাম, অ,পেক্ষাও করছিলাম। প্রত্যাশা ছিল, বিপরীতে বেড়েছে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা। গত

কয়েকদিন আইনশৃঙ্খলা বাহিনির হেফাজতে থেকে শুক্র,বার আ,দালতের নির্দেশে পরীমনিকে কাশিমপুর কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

স,হকর্মী হিসেবে যতদূর জানি পরীমনি বাবা-মা হীন। তার বেড়ে ওঠা পা,রিবারিকভাবে আর পাঁচটা তরুণ-তরুণীর বেড়ে ওঠা, স্ট্রাগলে যথেষ্ট পার্থক্য আছে। হয়তো সঠিক দিকনির্দেশনার অভাবে পরীমনি অনেক সময় সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পা,রেনি।

১০-আগস্ট আদালত চত্বরে পরী, শ,তবর্ষী নানা তার নাতনিকে দেখতে ছুটে গিয়েছিলেন। করোনার এই ভয়াবহতাও আটকাতে পারেনি তার বৃদ্ধ নানাকে, রক্তকে উপেক্ষা করতে পারেনি রক্ত। কিন্তু সময় কি নি,ষ্ঠুর! পরীমনির সঙ্গে নাকি দেখাই হলো না বৃদ্ধ নানার। আদালত চত্বরেই পরীমনির নানাকে ব,তে শুনেছি, ‘পরীমনি নিজের জন্য জীবনে কি,ছুই করেনি। সব মানুষের জন্য দান করে গেছে। এখন পরিস্থিতির শিকার হয়েছে।’

তিনি আরো লিখেছেন, ‘পরী, মামলা এখন বি,চারাধীন। ওই বিষয়ে কিছু বলছি না। সে যে মামলায় গ্রেপ্তার হয়েছে, তার কী অপরাধ সেটা বিশ্লেষণে যাচ্ছি না। দেশের প্রচলিত আইন আদালতের প্রতি

শ্রদ্ধা রয়েছে। নিশ্চয়ই নিরপেক্ষ তদন্ত শেষে সঠিক বিচার হবে। কিন্তু তার আগে পরীমনির জীবন ঘিরে সা,মাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে যেভাবে তাকে কা,ঠগড়ায় তোলা হচ্ছে, এটা সত্যি দুঃখজনক।

আরও দুঃখজনক ঘটনা হচ্ছে, ক,য়েকদিন ধরে খেয়াল করছি শুধু অভিযোগের ভিত্তিতে পরীমনি গ্রে,প্তারের পর তার প্রতি কোনো ধরনের সহযোগিতার হাত না বাড়িয়ে, দুঃসময়ে শিল্পীর পাশে না

থেকে উল্টো তড়িঘড়ি করে সংবাদ সম্মেলন করেছে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি। মুহূর্তে পরীমনির সদস্যপদ স্থ,গিত করা হয়েছে! এ যেন কাঁটা ঘায়ে নুনের ছিঁটে!’

‘সমিতির এ আচরণ সত্যিই খুব র,হস্যজনক। বিষয়টি নিয়ে বি,বেকবান অনেক সিনিয়র জুনিয়র শিল্পী ও সংস্কৃতিকর্মীদের আক্ষেপ রয়েছে। শিল্পীর সাথে সং,গঠনের এটি একটি অমানবিক আচরণ। প্রশ্ন, থেকে যায়, এখনকার চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি তাহলে কাদের স্বার্থে?

বি,গত দিনেও একাধিক সিনিয়র শিল্পী এর চেয়েও ভয়ঙ্কর অভিযোগে গ্রেপ্তার হয়েছিলেন। কিন্তু তখনকার শিল্পী স,মিতি অভিযুক্ত সদস্যের সদস্যপদ স্থগিত করেনি। বরং পাশে ছিল, রাস্তায় নেমেছিল।

কিন্তু এখনকার শি,ল্পী সমিতির এসব আচরণ বিতর্কিত। আবারও বোঝা গেল, এই শিল্পী সমিতি সবাইকে এক করতে পারেনি, বরং বি,চ্ছিন্ন করেছে। বিভেদ তৈরি করে ইন্ডাস্ট্রিতে কাজের পরিবেশ নষ্ট করেছে। হয়তো এজন্য চ,লচ্চিত্রের আজ এ দুর্দশা’- যোগ করেন শাকিব।

তিনি আরও লি,খেছেন, ‘এমনিতেই নানা কারণে সি,নেমা আজ ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে। তার মধ্যে এমন প,রিস্থিতি তৈরি হলে সামনে আরও ঘোর বিপদ। যারা পরী-কে বিপথে নিয়ে, গেছে, তাদেরও খুঁজে বের করা উচিত। পরীমনি ৩০টির বেশি সিনেমার সাথে জড়িত বলে জানতে পেরেছি। তার হাতে আছে আরও বেশকিছু সিনেমা.।

কিন্তু যারা বছরের পর বছর একটি সিনেমায়ও কা,জ না করে দিনের পর দিন শিল্পী সাইনবোর্ড ব্যবহার করে বিলাসবহুল জীবনযাপন করছে তাদেরও আয়ের উৎসও খুঁ,জে বের করা উ,চিত।

সহশিল্পী হিসেবে আশা রাখি, পরীমনির, ক্ষেত্রে আইন তার স্বকীয়তা বজায় রাখবে। পরীমনি, যখন ফিরবে তার ভুল থেকে শিক্ষাও নেবে। যে শিক্ষা, তার আগামী জীবনে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে সহায়তা করবে।’

প্রসঙ্গত, পরীমনির, বি,পরীতে শাকিব খান ‘আরো ভালোবাসবো তোমায়’ ছবিতে অভিনয় করেছেন। এ ছবিটি পরিচালনা করেন এস এ হক অলিক। এছাড়া শফিক হাসানের ‘ধূমকেতু’ সিনেমায়ও জুটি হ,য়েছেন শাকিব-“পরীমনি”|।

এমআই/এলএ/এমকেএইচ

About jacob done

Check Also

এহসান” গুরুপ নিয়ে খ্যাত, কুয়াকাটা হুজুরের মন্তব্য!

এহসান” গুরুপ নিয়ে খ্যাত, কুয়াকাটা হুজুরের মন্তব্য! ”হেলিকপ্টার হুজুর” খ্যাত কুয়াকাটার মাওলানা মো. হাফিজুর রহমান’ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *